মোরগ ডাকলে নাকি সূর্য ওঠে!

মিথ্যা কার্যকারণ সম্পর্ক বা False Causality

False Causality: আমার এক বন্ধু, রাইয়ানের বাচ্চার বয়স ৮ মাস। তো বাচ্চাকে নিয়ে বন্ধু মার্কেটে গেল। সেখান দেখা হয়ে যায় তার এক বান্ধবীর সাথে। বান্ধবীর নাম শর্মিলি। শর্মিলি বাচ্চাকে দেখে বলে, বাহ! বাচ্চাটা তো দেখতে বেশ। এর বয়স কত?
রাইয়ান: ৮ মাস।
শর্মিলি: বলিস কী! আমি তো ভেবেছিলাম দেড় বছর।

এরপর বাসায় আনার পর বাচ্চার জ্বর হলো। রাইয়ান তার এক বন্ধু সোহেলকে বলছে, এই শর্মিলির কথার কারণেই আমার বাচ্চার জ্বর হলো। একেই বলে ফলস কজালিটি তথা মিথ্যা কার্যকারণ সম্পর্ক।

মিথ্যা কার্যকারণ সম্পর্ক মূলত এক ধরনের ভ্রান্তি। এটা ল্যাটিন শব্দ ❝post hoc, ergo propter hoc তথ পোস্ট হক, আরগো প্রপটার হক❞ থেকে উৎসারিত। এর মানে হচ্ছে, প্রথমটার কারণে দ্বিতীয়টা হয়েছে। যেমন, শর্মিলি বাচ্চাকে সুন্দর বলেছে বলেই বাচ্চার জ্বর এসেছে।

আবার বললে, মিথ্যা কার্যকারণ সম্পর্ক বলতে বোঝায় প্রথম ঘটনা ঘটার পর যেহেতু এই ঘটনা ঘটেছে, তাই প্রথম ঘটনা দ্বিতীয় ঘটনার কারণ। যেমন, আমি যেদিনই আমা সাইকেলটা ধুই সেদিনই বৃষ্টি আসে। অথবা, আমি নীলক্ষেতে রাস্তার মোড়ে গেলেই ট্রাফিক গাড়ি থামার সিগনাল দেয়।

তথ্যসূত্র: The Art of Thinking Clearly. Rolf Dobelli. UK, Sceptre Publication, 2013. P. 115.

Leave a Reply